RtFSS

  • Increase font size
  • Default font size
  • Decrease font size
Home Completed

Event-completed

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা আইন- ২০১২: একটি সামগ্রিক পর্যালোচনাশীর্ষক আলোচনা সভা
২৮ নভেম্বর ২০১২, বুধবার
ভিআইপি লাউঞ্জ, জাতীয় প্রেসক্লাব

খাদ্য অধিকার ও সামাজিক নিরাপত্তা আন্দোলন এবং বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) যৌথভাবে গত ২৮ নভেম্বর, ২০১২ বুধবার, সকাল ১০.৩০টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা আইন ২০১২: একটি সামগ্রিক পর্যালোচনাশীর্ষক এক আলোচনা সভার আয়োজন করেবাপার সহ-সভাপতি অধ্যাপক ফিরোজ আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খাদ্য ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ ছায়েদুল হক এমপিঅনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আইন কমিশনের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ড. শাহ আলম, সিসিডিবি এর নির্বাহী পরিচালক এবং স্টিয়ারিং কমিটি সদস্য জয়ন্ত অধিকারী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক অধ্যাপক মাহবুবা নাসরীন, গণস্বাস্থ্য (কর্মসূচি) এর নির্বাহী পরিচালক মো. গোলাম মোস্তাফা দুলাল, এ্যাডভোকেট আবু রায়হান এম খালিদ, দুর্যোগ মোকাবেলা ফোরাম এর পরিচালক গওহার নঈম ওয়ারা প্রমূখখাদ্য অধিকার ও সামাজিক নিরাপত্তা আন্দোলন এর সদস্য সচিব জাকির হোসেনের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন এ্যাডভোকেট শহীদুল ইসলামএছাড়া আলোচনা সভায় খাদ্য অধিকার আন্দোলনভুক্ত সংগঠন ব্লাস্ট, সিসিডিবি, নাগরিক উদ্যোগ বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক ও মানবাধিকার সংগঠনের প্রতিনিধি এবং সংবাদকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন

মানববন্ধন ও নাগরিক সমাবেশে

খাদ্যপণ্যে রাসায়নিক সন্ত্রাস বন্ধ এবং ভেজালকারীদের কঠোর শাস্তি প্রদানের দাবি

১৭ নভেম্বর, ২০১২ সকাল ১০.৩০টা; জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে

খাদ্যপণ্যে রাসায়নিক সন্ত্রাস বন্ধের দাবিতে ১৭ নভেম্বর, ২০১২ সকাল ১০.৩০টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে খাদ্য অধিকার আন্দোলন এক মানববন্ধন ও নাগরিক সমাবেশে আয়োজন করেখাদ্য অধিকার অন্দোলনের সদস্য সচিব জাকির হোসেনের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, শ্রমিক নেতা আবুল হোসাইন, বাংলাদেশ ভূমিহীন সমিতির সভাপতি সুবল সরকার, ভাসমান নারী শ্রমিক উন্নয়ন কেন্দ্রের সভাপতি জাহানারা বেগম, দলিত নারী ফোরামের সভাপতি মনি রাণী দাস, বিডিইআরএস এর সাধারণ সম্পাদক বোধনকি সলোমন, একশন এইড এর ডেপুটি ম্যানেজার অমিত রঞ্জন দে প্রমূখসমাবেশে সংহতি জানিয়ে বিভিন্ন সামাজিক ও সংস্কৃতিক আন্দোলনের প্রতিনিধি, মানবাধিকার কর্মী ও আইনজীবী উপস্থিত ছিলেনখাদ্য অধিকার আন্দোলনের কর্মী এ বি এম আনিসুজ্জামান অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন

সমাবেশে বক্তারা বলেন, রাজধানীসহ সারা দেশের বাজারগুলো ফরমালিন, হাইড্রোজ, কার্বাইড, টেক্সটাইল রং, স্যাকারিন ইত্যাদি রাসায়নিক মেশানো খাবারে ছেয়ে গেছেভোক্তার কাছে বিক্রির জন্য যেসব খাদ্যপণ্য বাজারে আনা হয় তার প্রায় প্রতিটিতে বাজারে ঢুকানোর আগেই ফরমালিন, কার্বাইডসহ নানান ক্ষতিকর রাসায়নিক ও প্রিজারভেটিভ মেশানো হয় - যা মানবদেহের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকরদীর্ঘদিন ধরে এসব রাসায়নিক মেশানো খাবার খেলে শরীরে ক্যান্সার, আলসার, কিডনীসহ বিবিধ রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি তৈরি হয়মানবদেহের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর এসব ভেজালকারীদের নিয়ন্ত্রণে দেশে কঠোর কোন আইন নেইউপরন্তু একশ্রেণীর অসাধু ব্যবসায়ী প্রশাসনের কিছু অস কর্মকর্তার সাহায্যে এসব রাসায়নিক দ্রব্যের ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেভেজাল প্রতিরোধে এসব অসাধু ব্যবসায়ীদের এখনই কঠোর হস্তে দমন করা না গেলে দেশজুড়ে মানবিক বিপর্যয় সৃস্টি হবেনিরাপদ ও পুষ্টিকর খাদ্যের সরবরাহ নিশ্চিত করতে খাদ্যপণ্যে সকল ধরনের ভেজাল রোধে এখনই কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ জরুরী

আবুল হোসাইন বলেন, সরকার ফরমালিনের অবাধ আমদানি ও বিক্রি রোধে শীঘ্রি আইন করতে যাচ্ছে যা নি:সন্দেহে ভালো উদ্যোগকিন্তু আইন প্রনীত হওয়ার পর তার যথাযথ প্রয়োগ হচ্ছে কিনা এবং দোষি ব্যক্তিদের কঠোর শাস্তির বিধান হচ্ছে কিনা তা সরকারকেই নিশ্চিত করতে হবেতিনি আরো বলেন, বাজারগুলোতে ভেজালমুক্ত খাদ্যদ্রব্য বিক্রি হচ্ছে কিনা তা নিয়মিত নজরদারি করতে হবে এবং পাশাপাশি ভোক্তাদেরও সচেতন হতে হবে

সুবল সরকার বলেন, খাদ্যে ভেজাল মেশানোর ফলে গরীর মানুষেরা সবচেয়ে বেশি ঝুঁকির মধ্যে রয়েছেকারণ সামর্থ্যবানদের একটু বেশি টাকা খরচ করে তুলনামূলক ভালো খাদ্য কেনার সামর্থ্য থাকলে নি¤œ আয়ের সাধারণ মানুষের সে সামর্থ্য নেইতাদেরকে বাজার থেকে অপেক্ষাকৃত নি¤œমানের খাবার কম দামে কিনতে হয়যেখাদ্যটি মোটেও নিরাপদ ও স্বাস্থ্যকর নয়তিনি গরীর, শ্রমজীবী মানুষসহ সকল মানুষের সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করার জন্য বাজারগুলোতে ভেজালমুক্ত খাবারের সরবরাহ নিশ্চিত করার জন্য সরকারের প্রতি জোড় দাবি জানান

জাকির হোসেন বলেন, ফরমালিনসহ সকল রাসায়নিক শরীরের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকরএকারণে বিশেষ করে শিশুদের শারীরিক বিকাশ মারাত্মক হুমকির মধ্যে পড়ছেঅথচ সরকারের নিস্ক্রিয়তার কারণে বেপরোয়াভাবে বিভিন্ন খাদ্যদ্রব্যে রাসায়নিক মিশিয়ে চলেছে অসাধু ব্যবসায়ীরাতিনি আরো বলেন, খাদ্যের মান বজায় রাখাসহ নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করতে ২০০৯ সালের ২০ জুন মাসে একটি রায় দিয়েছিল হাইকোর্টওই রায়ে প্রতিটি জেলায় খাদ্য আদালত গঠন এবং ল্যাবরেটরি প্রতিষ্ঠা করে খাদ্যের গুণ ও রাসায়নিকের মান পরীক্ষার জন্য খাদ্য পরীক্ষক নিয়োগের নির্দেশ দেয়া হয়এছাড়া ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনটিও যথাযথভাবে বাস্তবায়ন হচ্ছে না বলে তিনি অভিযোগ করেনতিনি ভোক্তার স্বার্থ রক্ষায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরকে শক্তিশালী করে প্রতিটি জেলা/উপজেলায় এ কার্যক্রমকে সক্রিয় করার জন্য সরকারের প্রতি আবেদন জানান

 

 

বিশ্ব খাদ্য দিবস ২০১২
কৃষি সমবায় হোক খাদ্য নিরাপত্তার চাবিকাঠি
১৬ অক্টোবর, ২০১২ সকাল ১০:৩০ টা; জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে

ঢাকা:

 

 

সারা বিশ্বব্যাপি খাদ্যের অধিকার, নিরাপত্তা এবং সুষম বন্টন, ন্যয্যতা প্রতিষ্ঠার লক্ষ্য থেকে প্রতিবছর ১৬ অক্টোবর বিশ্ব খাদ্য দিবস পালিত হয়খাদ্য নিরাপত্তার উন্নয়ন ও ক্ষুধা দূর করতে সমবায় যে ইতিবাচক ভূমিকা রাখছে তার স্বীকৃতি স্বরূপ জাতিসংঘের কৃষি ও খাদ্য সংস্থা কৃষি সমবায় ঃ বিশ্ব খাদ্য নিরাপত্তার চাবিকাঠিএবারের প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করেদিবসটি পালন উপলক্ষে গত ১৬ অক্টোবর, ২০১২ সকাল ১০:৩০ টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে খাদ্য অধিকার ও সামাজিক নিরাপত্তা আন্দোলনমানববন্ধন ও নাগরিক সমাবেশের আয়োজন করে

মানববন্ধন ও সমাবেশে খাদ্য অধিকার আন্দোলন-এর সদস্য সচিব জাকির হোসেন-এর সভাপতিত্বে সংহতি বক্তব্য রাখেন ভাসমান নারী শ্রমিক উন্নয়ন কেন্দ্রের সভাপতি জাহানারা বেগম, বাংলাদেশ দলিত ও বঞ্চিত জনগোষ্ঠীর অধিকার আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক বোধনকি সলোমন, দলিত নারী ফোরামের সভাপতি মনি রানী দাস, তৃণমূল নারী উদ্যোক্তা সোসাইটির হিমাংশু মিত্র প্রমূখসমাবেশ সঞ্চালনা করেন আন্দোলনের সমন্বয়কারী অমিত রঞ্জন দে

সমাবেশে বক্তারা বলেন, ক্ষুধা দূর করা ও উন্নয়ন নিশ্চিত করার বহু উপায় ও উদ্যোগ থাকা সত্ত্বেও বিশ্বে এখনও প্রতি সাত জনে একজন অপুষ্টিতে ভোগেবিশ্লেষকদের মতে, ২০৫০ সাল নাগাদ বিশ্বের নয়শকোটি মানুষের জন্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সরবরাহ করার ক্ষেত্রে সমবায় মূল ভূমিকা পালন করবেকিন্তু লক্ষ্যণীয় হচ্ছে, উন্নয়নশীল দেশগুলোর বেশিরভাগ ক্ষুদ্র কৃষকদের জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বাজারে কী ঘটছে বা বাজারে সে কিভাবে প্রবেশ করবে কিংবা বাজার তার সাথে কী ধরনের আচরণ করবে সে সম্পর্কে তেমন কোন ধারণা নেইপাশাপাশি কৃষকরা উচ্চ মানসম্পন্ন যন্ত্রপাতি ও প্রযুক্তি ব্যবহারের সুযোগ থেকেও বঞ্চিত

বক্তারা আরো বলেন, খাদ্য উপাদন বাড়াতে কৃষকদের বিভিন্ন বিষয়, যেমনÑ বীজ ও সারের পরিবর্তনশীল মূল্য বিবেচনায় রাখতে হবে এবং অত্যাবশ্যকীয় এসব পণ্য ক্রয়ের ক্ষেত্রে ঋণের বিষয়ও নিশ্চিত করতে হবেপাদিত খাদ্যপণ্য সরাসরি বাজারজাত করার জন্য পর্যাপ্ত পরিবহন ব্যবস্থা ও গ্রামীণ অবকাঠামোর উন্নয়ন অত্যন্ত জরুরিক্ষুদ্র কৃষকদের মধ্যে সমবায়ের ধারণা গড়ে তুলতে হবেসমবায় ক্ষুদ্র কৃষকের স্বার্থ রক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে সক্ষম

আন্দোলনের সদস্য সচিব জাকির হোসেন বলেন, আমাদের সংবিধানে রাষ্ট্রীয় মালিকানা, ব্যক্তি মালিকানা এবং সমবায় মালিকানার কথা বলা থাকলেও সমবায়ভিত্তিক মালিকানার ধারণাটি খুবই দুর্বল অবস্থায় রয়ে গেছেদরিদ্র মানুষ সমবায়ের মাধ্যমে সংগঠিত হয়ে তার পুঁজি সম্প্রসারণ ঘটাতে পারেতিনি আরো বলেন যে, বিশ্বের সব দেশেই কৃষি, খাদ্য, অর্থনীতি, স্বাস্থ্যসেবা, বিপণন, ইন্সুরেন্স এবং ঋণসহ সবখাতে সমবায় ব্যবস্থা লক্ষ্য করা যায়কৃষি, বনায়ন, স্যচাষ এবং পশুপালনের ক্ষেত্রে সমবায় সংস্থার সদস্যরা মূলত উপাদন, লভ্যাংশ বণ্টন, ঝুঁকি ভাগ করে নেয়া এবং আয়বর্ধক বিভিন্ন কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ করেতিনি সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির সাথে সংশ্লিষ্ট দুর্নীতি রোধ এবং সামাজিক সুরক্ষার একটি নীতিমালা ও আইনগত প্রণয়নের দাবি জানান

বরিশাল

বিশ্ব খাদ্য দিবস উপলক্ষে একই দিনে খাদ্য অধিকার ও সামাজিক নিরাপত্তা আন্দোলন এর আয়োজনে বরিশালে সমাবেশ ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়বীর মুক্তিযোদ্ধা আক্কাস হোসেন এর সভাপতিত্বে গত ১৬ অক্টোবর, ২০১২ নগরীর অশ্বিণী কুমার হল চত্বরে এ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়নাগরিক উদ্যোগর এর জেলা সমন্বয়কারী রেজবিউল কবিরের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশ ও মানববন্ধনে বিশেষ অতিথি উপস্থিত ছিলেন মানবাধিকার জোটের সভাপতি ডা: সৈয়দ হাবিবুর রহমান, অধ্যাপিকা শিবানী চৌধুরী, খাদ্য অধিকার ও সামাজিক নিরাপত্তা আন্দোলন এর জাতীয় কমিটির সদস্য রফিকুল ইসলাম, সুপ্রিয় দত্ত, মাসুক কামাল প্রমুখ

কর্মসূচিতে বিভিন্ন সেচ্ছাসেবী-সামাজিক সংগঠনের প্রতিনিধি ও নাগরিকবৃন্দ অংশ নেনবক্তারা সংবিধানে খাদ্য অধিকারকে মৌলিক চাহিদা নয় অধিকার হিসেবে অন্তভুর্ক্তির দাবী জানানতারা বলেন, বিশ্বের আনুমানিক ৯২ কোটিরও বেশি ক্ষুধার্ত মানুষের ৭০ শতাংশই গ্রামাঞ্চলে বসবাস করে, যেখানে কৃষিই হচ্ছে অর্থনীতির মূল চালিকাশক্তিকৃষি ও খাদ্যভিত্তিক সমবায় সংস্থা ইতিমধ্যে ক্ষুধা ও দারিদ্র্য দূর করার ক্ষেত্রে বড় হাতিয়ার হিসেবে আবির্ভূত হলেও একে কাজে লাগিয়ে আরো অনেক বেশি কিছু করা সম্ভবতাই, তাদের জন্য উপযোগী আইনগত, নীতিগত এবং সামাজিক পরিবেশ সৃষ্টির মাধ্যমে এসব সংস্থাকে শক্তিশালী করার এখনই উপযুক্ত সময়

রংপুর

বিশ্ব খাদ্য দিবস উপলক্ষে কৃষি সমবায় হোক খাদ্য নিরাপত্তার চাবি কাঠিএই শ্লোগানকে সামনে রেখে গত ১৬ অক্টোবর, ২০১২ খাদ্য অধিকার আন্দোলনের রংপুর শহরের শাপলা চত্বর এলাকায় মানববন্ধন কর্মসূচী ও সমাবেশের আয়োজন করেমানববন্ধন ও সমাবেশে বক্তারা ক্ষুধা ঠেকাতে কৃষি সমবায়ে বিনিয়োগ বাড়ানো, সমবায়েরর জন্য বিশেষ আইন প্রণয়ন, সমবায়ের মাধ্যমে বাড়তি দাম পাওয়া, সমবায়ীদের বৃহত্তর জোট গঠন, বেসরকারী ও সরকারী উদোক্তাদের সমবায়ের দিকে বাড়তি নজর দেয়া ইত্যাদি বিষয়ে তাদের বক্তব্য তুলে ধরেন

 

কর্মসূচিতে আলোচনায় অংশ নেন বাংলাদেশের ওয়ার্কাস পার্টি রংপুর এর সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য কাজী মাজিরুল ইসলাম লিটন, মানবাধিকার পর্যবেক্ষণ দলের রাজেন্দ্রপুর ইউনিয়নের সম্পাদক মঞ্জু আরা বেগম, হরিদেবপুর ইউনিয়নের সভাপতি মোজাম্মেল হক, মমিনপুর ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মঞ্জ রানী, চন্দন পাট ইউনিয়নের সভাপতি মজনু চৌধুরী, সুপ্র এর সমন্বয়কারী সাইফুল ইসলাম, নাগরিক উদ্যোগ রংপুর শাখার কর্মী শ্যামল মোহন্ত ও খাদ্য অধিকার আন্দোলনের কর্মী সৈয়দ আরিফুল ইসলাম

 

Event: Local Level Consultation

Title: Food Security in South-West Coastal Region of Bangladesh: Perspective Disaster
Date: August 29, 2012
Venue: Press club, Khulna.

Description:

A consultation organised by the campaign titled “Food Security in South-West Coastal Region of Bangladesh: Perspective Disaster” at Press club in Khulna on August 29, 2012.

Climate change left an adverse impact on the south-western coastal belt of the country where storms, cyclones, tidal surges, droughts, river erosion and water- logging are common phenomenon. The seminar was organised for improving food and livelihood security in South- Western coastal belt in the circumstance of increased disaster risk.

Directorate of Department of Environment, Khulna Division Dr. Tarun Kanti Sikder was present at the seminar as the chief guest. Member secretary of Khulna Nagorik Somaj Advocate Firoz Ahmed, executive director of Sundarban Academy Prof Md. Anwarul Kadir, convener of Concerned Citizen Committee (CCC), Khulna Prof Zafar Imam, teacher of Environmental Science Faculty of Khulna University (KU) Dr. Dilip Kumar Datta were present as special guests.

Khulna bureau chief of daily Kaler Kantho Gourango Nandi presented the keynote paper. The seminar was addressed by the member secretary of RtF&SS, Zakir Hossain.

Result/Recommendations:

At the seminar the following recommendations were made:

· Creation of special employment is needed urgently for Aila (disaster) affected people at coastal areas.

· Food support need to continue for the affected people

· Government should purchase food grains directly from farmers by giving subsidy.

· Government should give food assistance to landless and marginalized groups by introducing rationing system in this area.

· Taking measures to prevent decreasing of agricultural lands/ need to control shrimp culture

· Stop cutting embankment and stop allowing saline water into the lands. Expert opined after 30 years these lands will be totally damaged. As a result, infertility of land will increase, already in some parts of the region nothing grow in that land.

· Collecting compensation/ money from prawn producers for the people who are affected for the saline water prawn production. The collected money can be used for repairing embankment.

· Distributing produced food grains properly and making store house for preserving surplus production of food at coastal area.

 

Event: Public Gathering and Human Chain

Title: Demanding to Stabilize Prices and Stop Food Adulteration by Implementing the High Court Instructions.
Date: 19 July 2012
Venue: In front of National Museum, Dhaka.

Description:

The Campaign organized a demonstration titled ‘Demanding to Stabilize Prices and Stop Food Adulteration by Implementing the High Court Instructions’ in front of National Museum, Dhaka at 10:30AM on 19 July, 2012. Sayeed Sultan Uddin Ahmed, the Assistant Executive Director of BILS, Ruhin Hossain Prince of CPB, Aminur Rasul from Unnoyon Dhara Trust, Sabul Sarkar from Bangladesh Vumihin Samity, Jahanara Begum of Vashman Nari Shromik Unnoyon Kendro and Moni Rani Das from Dalit Nari Forum spoke at the demonstration with Zakir Hossain, the Member Secretary of RtF & SS, in the chair.

The speakers said the price of essentials starts increasing in the beginning of Ramadan. The business community indulged in too much profit-mongering. There was no effective initiative by Government to control these business communities. Syndication of business and lack of government initiatives to control the price hike people suffering. Food adulteration with poisonous chemicals has increased. The government should take measures to control prices of essentials and food adulteration by implementing the High Court’s instructions, speakers said.

Many national dailies published the news with due importance.

Results/ Recommendations:

At the demonstration the following demands were made:

· Trading Corporation of Bangladesh (TCB) needs to take steps distribute essentials at fair price in every ward during Ramadan;

· Effective control of price hike of essentials and food adulteration by monitoring market regularly.

· Need to take strong administrative measures preventing syndication and the hoarder should be punished by existing law.

· Government should take major role for the small importer to access in market.

· Ensuring fair price and distribution on essentials at remote area.

· Safe and nutritious food should be ensured by implementing the High Court Orders.

· Citizens and political leaders should play effective role to build awareness on the issue.

Local Event:

Three demonstrations were held at Barisal, Rangpur and Khulna district accordingly, on the same issues during Ramadan for building awareness among the people. Local political leaders, journalists, human rights activists, lawyers, and some local eminent citizens were present at the event. Many local and national dailies published the news with due importance.

 

Event: National Level Discussion

Title: Proposed Allocation in Social Safety net Programme for Fiscal Year 2012-13: A Critical Review
Date: 20 June 2012
Venue: Dhaka Reporters Unity Roundtable Room, Dhaka.

Description:

A seminar titled ‘Proposed Allocation in Social Safety net Programme for Fiscal Year 2012-13: A Critical Review’ was organized at Dhaka Reporters Unity Roundtable Room, Dhaka at 10:30 am on June 20, 2012. Campaign Steering Committee member Monower Mostafa presented the keynote paper. Research fellow of PPRC Khandoker Shakhawat Ali, Agricultural Economist Prof. Moazzem Hossain, Member Secretary of RtF&SS Zakir Hossain, General Secretary of Vumiheen Somity Subal Sarker, Kalu Mia spoke at the seminar. Right Activist, NGO representatives and political leaders participated in the discussion.

Results/ Recommendations:

At the seminal the following recommendations were made:

· The implementation of social safety net programmers should be managed by a single authority and need to build an effective monitoring system.

· Govt. safety net programme is still a charity based. But the government has to formulate right based policy. So that it turn out to be an obligation for the government.

· Need to organise social audit at public to review and evaluate the safety net programme.

· The political biased in selecting the beneficiaries need to stop immediately.

· It should be mandatory to display the beneficiary list in the display board of union council, proper order need to circulate from the central local government authority.

· Socially excluded peoples should be included in long term programme.

 

 

Date: 19 June 2012
Venue: In front of National museum, Dhaka

Event : Local Level press conference

Title: Press briefing on the research findings
Date: 28 May 2012
Venue: Gangchara Upazalia Parisahd Auditorium, Rangpur district

Description:

A press conference was also organized with the local media on the following day of the local level consultation. 12 journalists were present in the conference.

Event : Local Level Consultation

Title: Beneficiary Selection under Safety Programme: Problems and Way Forward
Date: 27 May 2012

Venue: Gangchara Upazalia Parisahd Auditorium, Rangpur district

Description:

To assess the on-the-ground situation of VGD and Old age allowances under safety net programme, a study has been conducted in Laximitari Union under Gangachara Upazial (Sub-district). The primary objective of the study was to assess the selection biased, if any and other irregularities related to these two programs.

Some of the key findings of the study are as follows:

§ Selection criteria as per policy are largely violated; mostly patron-client relationship dominated to select the beneficiaries.

§ 50 percent respondent reported that they had to give bribe to get the beneficiary card

§ Insufficient allocation of fund, not taking into account the needs of the community, competing demands lead to bribe

§ Vulnerable Group Development (VGD) includes skill training, but all respondents reported that no training was provided although 14 months have already elapsed out of 24 months cycle.

§ Survey results indicates that under VGD programme 93% beneficiarie’s husband has regular income, and 50% beneficiaries has also cash source of income on regular basis. It indicates that most vulnerable groups are largely out of the programme. In response to a question, the current beneficiaries confessed that there are more vulnerable people in the community compared to the present number, but they did not secure any card as they could not give the bribe and not connected with the influentials.

To share the findings with the larger community, a consultation meeting was organized having representative from government, local government official, beneficiaries interviewed and other relevant stakeholder including NGOs.

After presentation of findings a mixed reaction has been observed among the participants. Government official under social welfare ministry (responsible for this programmes) reacted sharply and tried to defend saying that there is no irregularities in the selection process and distribution of the material and cash transfer. However, Upazila Chairman, Upazila Chief Executive Office (the central government representative at the Upazila level) has agreed with the study findings and shared their own experiences they have gathered. Newly elected Chairman of that particular union (the study field) also agreed that there is a corruption in terms getting card and distribution of less food stuff than entitled. He tried to defend in saying that there is some system loss and government does not provide any cost associated with the transportation of the wheat/rice.

 

Event 4: National Level Seminar

Title: Political Economy of Right to Food
Date: 12 May 2012

Venue: CIRDAP Auditorium, Dhaka

Description of the Event:

A seminar was organized titled “Political Economy of Right to Food” at CIRDAP auditorium, Dhaka on May 15, 2012 at 10:30 AM. Renowned economist Prof. M M Akash presented the key note paper written for RTF&SS. Dr. Mizanur Rahman, Chairman of National Human Rights Commission Bangladesh was the Chief Guest of the seminar.

Economist and Research Director of Bangladesh Institute of Development Studies (BIDS), Dr. Binayak Sen, Advocate Sara Hossain of BLAST, and Campaign steering committee member Monower Mostafa spoke as designated discussants. Academics, rights activists, NGO representative and political leaders participated in the discussions. Member Secretary of the Campaign moderated the session.

 

Event 3: Press conference

Title: Irregularities and corruption of Safety Net Programmes & Public Food Distribution System
Date: 08 May 2012

Venue: Dhaka Reporters Unity roundtable Room, Dhaka

Description of Event:

Campaign for Right to Food & Social Security (RTF & SS) begins press report monitoring on governance, corruption and irregularities of safety net programs and PDS in the beginning of its journey. We have prepared a report based on the news reporting of 10 leading newspaper on the irregularities and corruption of safety net programmes during the period of nine (9) months. Particularly four programmes namely, VGD, VGF,TR and OMS were highlighted in the press conference. A gross mismanagement was found in the delivery of these programs.

 

Training 1: Three-day long Training Workshop – (National Level)

First batch: 27-29 December, 2011
Second batch:
19-21 April, 2012
Venue: NGO Forum Training Centre, Lalmatia

Brief description:

Two batches of training programmme were organized. A total of 45 participated in the training prgramme. More than fifty percent of the participants were from the NETZ and BftW partners NGOs. The following issues were discussed in the training programme:

· Concepts of right to food, Food Security and Food Sovereignty etc.

· Discussions on poverty and related issues.

· Exiting safety net peogramme.

· Economic, Social & Cultural Rights(ICESCR)

· FAO Voluntary Guideline

· Policy and legal issues

· Women’s Right to Food as a Human Right

· Interrelatedness of Rights

(Right to health, Right to Education, Right to Information, Right to participation, Access to Land)


Workshop 2: Two-day long Training Workshop – (Local level)

Title: Realizing Right to Food the Role of the Government and Civil Society
Date: 24-25 February, 2012
Venue: Caritas Training centre, Barisal

Brief descriptions:

A two-day long regional training/workshop titled ‘Realizing Right to Food: The Role of Govt. and Civil Society’ was organized. 28 (twenty eight) participants were attended in this training programme representing different organizations. Member Secretary of RtF&SS Zakir Hossain, Monower Mostafa, Programme Officer of RtF&SS Ferdous Ara Rumee, and Project Coordinator of RtF&SS Amit Ranjan Dey were the resource persons of this training programme. Following issues were discussed in the workshop:

· Concepts of right to food, Food Security and Food Sovereignty etc.

· Discussions on poverty and related issues.

· Exiting safety net peogramme.

· Economic, Social & Cultural Rights(ICESCR)

· Policy and legal issues

· Women’s Right to Food as a Human Right

· Interrelated of Rights

(Right to health, Right to Education, Right to Information, Right to participation, Access to Land)

· Identifying local problem

· Techniques of case documentation

 

 

Event : Joint Seminar with FIAN Nepal

Title: ‘Realization of Right to Food: Challenges and Opportunities’
Date: November 21, 2011

Venue: Dhaka University Campus- SASF Venue

Description of event:

On the occasion of South Asian Social Forum (SASF)-2011, RtF&SS and FIAN Nepal jointly organized a South Asian seminar with titled ‘Realization of Right to Food: Challenges and Opportunities’ on 21 November 2011 in Dhaka. Representative from RTF campaign in Bangladesh and representative form FIAN Nepal and FIAN India spoke on the occasion and highlighted the country specific issues related to Right to Food, as chief guest Dhaka University Professor and Economist M M Akash detailed out the right to food situation from the perspective of political economy. His speech greatly helped the participants to understand the issue and encourages moving forward with the campaign. A large number of participants from Bangladesh and south Asian region attended in the event.

The seminar discussed the challenges of the food security in Bangladesh as well as in South Asia. The speakers stressed the need for regional cooperation for food security in the South Asian countries. Speakers also suggested launching a join research regionally to look at the major challenges of realizing the right to food both in legal, policy and economic perspective. Another seminar was also organized by FIAN India in the same occasion and Member Secretary of RTF &SS moderated the session.

 

Event 1: Formal launching of the Campaign through observing the World Food Day

Date: October 16, 2011
Venue: In front of National Press Club, Dhaka

Brief description of the event:

A human chain was organized titled ‘Food Prices: From Crisis to Stability’ on the occasion of World Food Day-October 16, 2011 in front of National Press Club, Dhaka. People from different sectors including informal sector labourer, dalits, trade union leaders, members/leaders from different political parties, CSO representatives were participated in the event. A leaflet containing the demands including making effective of Trading Corporation of Bangladesh (TCB) – (a government organization mainly responsible for providing fair / low price foodstuffs to the low income groups , Monitoring of prices of essential commodities in the local market vis-a-prices in the international market and market intervention during price hike in the local market). The demand also included, controlling the rate of inflation, better management of safety net programmes etc. Speakers focused on various aspects of the issue.


 

Publication

Banner